Politics

[Politics][bleft]

West Bengal

[West Bengal][grids]

World

[World][bsummary]

National

[National][twocolumns]

এবার জেনে নিন কীভাবে দূর করবেন দাঁতে পোকা লাগার মতো সমস্যা


 








 ছোট বাচ্চাদের নানা কারণ বশত দাঁতে পোকা লাগতে পারে। এবার তারজন্য দাঁতে ব্যথা, মাড়ি ফুলে যাওয়া, খেতে অসুবিধের মতো সমস্যা হয় সেক্ষেত্রে কিছু ঘরোয়া প্রতিকারের মাধ্যমে দাঁতে পোকা লাগার মতো সমস্যা থেকে মুক্তি পাওয়া যাবে।



পেয়ারা পাতা:

 পেয়ারা পাতাও খুবই উপকারী।  এটি মাড়ির ফোলা, ব্যথা এবং রক্তপাতের সমস্যা থেকে মুক্তি দেয়।


 নিম:

ওষুধি গুণে ভরপুর নিমের মধ্যে অ্যান্টি-অক্সিডেন্ট, অ্যান্টি-ব্যাকটেরিয়াল বৈশিষ্ট্য পাওয়া যায়।  এর পাতার রস বের করে তুলোর সাহায্যে মাড়িতে লাগান।


 প্রায় ৫ মিনিট মুখে রাখার পর হালকা গরম জল দিয়ে ধুয়ে ফেলুন।  দিনে দুবার এই প্রতিকার করলে দাঁতে পোকা লাগা থেকে মুক্তি পেতে সাহায্য করে।



চুন ও ফিটকিরি:

 যে কোনও একটি পাত্রে কয়েক ফোঁটা জলের সঙ্গে এক চিমটি চুন ও ফিটকিরি মিশিয়ে পেস্ট তৈরি করুন।  সেই পেস্টটি দাঁতের যেখানে পোকা লেগেছে সেখানে লাগান।  তারপর দুই বা তিন মিনিট পর কৃমি নিজেই লালা আকারে আপনার মুখ থেকে বেরিয়ে আসবে।


লবঙ্গ:

 আয়ুর্বেদে লবঙ্গের অনেক উপকারিতা বলা হয়েছে।  দাঁত সংক্রান্ত প্রতিটি সমস্যার ওষুধ হল লবঙ্গ।  দাঁতে পোকামাকড়ের সমস্যা থাকলে দুটি লবঙ্গ ভালো করে পিষে তার গুঁড়ো দাঁতে ছিটিয়ে দিন বা এর গুঁড়ো দাঁতে চেপে দিন।  এবার মুখ বন্ধ করুন এবং লালা তৈরি হতে দিন।


 রসুন:

 রসুনের অনেক গুণ রয়েছে।  এটি অ্যান্টি-ব্যাকটেরিয়াল, অ্যান্টি-ফাঙ্গাল এবং অ্যান্টি-বায়োটিক বৈশিষ্ট্যে সমৃদ্ধ।  এ ছাড়া রসুন ব্যথা থেকেও মুক্তি দেয়।  যে দাঁতে পোকা আছে সেই একই দাঁতে রসুনের দুটি কোয়া চিবিয়ে নিন।


 দাঁতের পোকা থেকে মুক্তি পেতে ঘরোয়া প্রতিকার হিসেবে লিকোরিস ব্যবহার করা যেতে পারে কারণ এতে কার্যকর অ্যান্টি-মাইক্রোবিয়াল বৈশিষ্ট্য রয়েছে।  এ কারণে এটি দাঁতের পোকামাকড় দূর করে মুখের স্বাস্থ্য ঠিক রাখতে সাহায্য করে।


হলুদ:

হলুদে অ্যান্টি-ব্যাকটেরিয়াল, অ্যান্টি-ভাইরাল, অ্যান্টি-ইনফ্লেমেটরি বৈশিষ্ট্য রয়েছে।  হলুদে কয়েক ফোঁটা জল মিশিয়ে ম্যাসাজ করলে মাড়ির ব্যথা, ফোলা ও রক্তপাতের সমস্যা দূর হয়।

No comments: