Politics

[Politics][bleft]

West Bengal

[West Bengal][grids]

World

[World][bsummary]

National

[National][twocolumns]

ত্বকের টানটান ও সতেজতা ফিরিয়ে আনুন কিছু সহজ উপায়ে


প্রায়ই, মুখের ত্বক বয়স সঙ্গে আলগা হতে শুরু করে এবং আলগা ত্বক আপনার সৌন্দর্যপ্রভাবিত করে এবং আপনার ত্বক খারাপ দেখায়। যদি আপনার মুখের ত্বকও আলগা হয়ে যায়, তাহলে আপনি ত্বক শক্ত করতে নিম্নলিখিত পদক্ষেপগুলি চেষ্টা করা উচিত -


:- প্রচুর জল পান করুন: পানীয় জল স্বাস্থ্যের জন্য উপকারী এবং পানীয় জল শরীরের অনেক উপকারিতা প্রদান করে। সুন্দর ত্বক পেতে, দিনে কমপক্ষে ১০ গ্লাস জল পান করুন। পানীয় জল আপনার ত্বক আলগা অপসারণ এবং ত্বক শক্ত করবে।


:- মুলতানি মাটি : 

মুখে মুলতানি মিত্তি প্রয়োগ করে মুখের ত্বক শক্ত হয়ে যায় এবং ত্বক আলগা হয় না। তাই চাইলে মুখে মুলতানি মিটি পেস্টও লাগাতে পারেন। মুলতানি মিটি পেস্ট তৈরি করতে, কিছু মুলতানি মিটিতে জল যোগ করুন এবং মুখে প্রয়োগ করুন।


:- ম্যাসেজ: মুখ ম্যাসেজ ত্বক টাইট এবং ঝুলন্ত ত্বক টাইট করে। ত্বক টাইট পেতে, ঘুমানোর আগে প্রতি রাতে আপনার ত্বক ম্যাসেজ করুন। ত্বক ম্যাসেজ, মুখে কিছু ক্রিম প্রয়োগ এবং হালকা হাত দিয়ে মুখ ম্যাসেজ। ক্রিম ছাড়াও, আপনি অ্যালোভেরা এবং তেল সাহায্যে মুখ ম্যাসেজ করতে পারেন।


:- মুখে শসার রস প্রয়োগ:

মুখে শসার রস প্রয়োগ মুখের রঙ পরিষ্কার করে এবং মুখের ত্বক আলগা হয় না। আপনি একটি শসা নিন এবং এটি পিষে এবং এটি পিষে রস নিষ্কাশন। তুলোর সাহায্যে মুখে এই রস প্রয়োগ করুন। এটি ১৫ মিনিটের জন্য মুখে ছেড়ে দিন এবং যখন এটি শুকিয়ে যায়, জলের সাহায্যে মুখ পরিষ্কার করুন। সপ্তাহে তিন দিন মুখে শসার রস প্রয়োগ রিঙ্কল, ডার্ক সার্কেল, এবং আলগা ত্বকের সমস্যা দূর করে।


কলার পেস্ট: কলার পেস্ট প্রয়োগ এছাড়াও আলগা ত্বক সংশোধন করে। আপনি একটি কলা ভাল পিষে এবং একটি পেস্ট তৈরি করতে দুধ মেশান। এই পেস্ট আপনার মুখ এবং গলায় প্রয়োগ করুন। এই পেস্ট ২০ মিনিটের জন্য মুখে ছেড়ে দিন এবং ২০ মিনিট পর পানির সাহায্যে মুখ পরিষ্কার করুন। মুখে কলা পেস্ট প্রয়োগ মুখের ত্বক আলগা হবে।


যোগব্যায়াম করুন:


যোগব্যায়াম করলে ত্বকের কোষসক্রিয় থাকে এবং আপনার ত্বক সুন্দর থাকে। প্রতিদিন বিরতির কারণে, মুখ, গলা, চোখ, ঠোঁট, ঘাড় এবং কপালের চারপাশের চামড়া আলগা হয় না এবং ত্বক আঁটসাঁট থাকে। অতএব, আপনি প্রতিদিন কিছু সময়ের জন্য যোগব্যায়াম করেন।

No comments: