Politics

[Politics][bleft]

West Bengal

[West Bengal][grids]

World

[World][bsummary]

National

[National][twocolumns]

শিশির ও সুনীলকে চিঠি লোকসভা সচিবালয়ের

 





দলত্যাগ বিরোধী আইনে শিশির অধিকারী ও সুনীল মণ্ডলকে চিঠি দিল লোকসভার সচিবালয়। আগামী ১৫ দিনের মধ্যে ওই চিঠির জবাব দিতে হবে দুই সাংসদকে। এমনটাই লোকসভার সচিবালয় সূত্রে খবর।





উল্লেখ্য, তৃণমূলের তরফে সুদীপ বন্দ্যোপাধ্যায় একাধিকবার লোকসভার স্পিকারকে চিঠি লিখে শিশির অধিকারী ও সুনীল মণ্ডলের সাংসদ পদ খারিজের আবেদন করেন। তৃণমূলের যুক্তি ছিল, বিধানসভা নির্বাচনের সময় শিশির অধিকারীর আচরণ ও মন্তব্য দলের সঙ্গে সংগতিপূর্ণ ছিল না। দলের সঙ্গে কোনও যোগাযোগও রাখেননি তিনি। অন্যদিকে, সুনীল মণ্ডল সরাসরি বিজেপিতে যোগ দিয়েছিলেন। ফলে তাদের কোনওভাবে তৃণমূল সাংসদ হিসেবে মান্যতা দেওয়া সম্ভব নয়। তাই দলত্যাগ বিরোধী আইনে ওই দুই সাংসদের সাংসদপদ খারিজ করা উচিত।




লোকসভার সচিবালয়ের চিঠির বিষয়বস্তু, কেন দলত্যাগ বিরোধী আইনে তাঁদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হবে না তা জানতে চাওয়া হয়েছে শিশির অধিকারী ও সুনীল মণ্ডলের কাছে। এমনটাই খবর সূত্রের। তবে লোকসভায় সচিবালয়ের তরফে অফিসিয়ালি কোনও নথি প্রকাশ করা হয়নি।


এদিকে, ওই চিঠির পর পাল্টা একটি দাবি তুলতে পারে বঙ্গ বিজেপি। কারণ মুকুল রায় বিজেপি টিকিটে জিতে বিধায়ক হয়েছেন। তারপর তিনি যোগ দিয়েছেন তৃণমূলে। ফলে মুকুল রায়ের বিরুদ্ধেও দলত্য়াগ বিরোধী আইনকে হাতিয়ার করে সুর চড়াতে পারে বিজেপি। এমনটাই মনে করছে রাজনৈতিক মহল।

No comments: